মালয়েশিয়ায় আসতে পারে সরকার পরিবর্তন, আনোয়ার ইব্রাহীমের সাথে রাজার সাক্ষাৎ

 



মালয়েশিয়ায় হয়তো আসতে পারে বড় ধরনের রাজনৈতিক পরিবর্তন।  মালয়েশিয়ার রাজনীতিতে ত্রিমুখী চ্যালেঞ্জ দেখা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই। প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিনের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ঘোষণা করেছেন বিরোধী দলীয় নেতা আনোয়ার ইব্রাহিম। 


তিনি দাবি করেছেন পার্লামেন্টে সংখ্যা'গরিষ্ঠ এমপির সমর্থন আছে তার প্রতি। তাই তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নতুন সরকার গঠন করতে চান। কথা জানাতে মঙ্গলবার সাক্ষাত করেন রাজা সুলতান আবদুল্লাহ সুল'তান আহমেদ শাহর সঙ্গে। তার কাছে দাবির পক্ষে তথ্যপ্রমাণ উপস্থাপন করেন আনোয়ার ইব্রাহিম। এরপর ডেমোক্রেটিক একশন পার্টি (ডিএপি) ও আমানাহ’র নেতারা একটি বিবৃতি দিয়েছেন। 


তাতে বলা হয়, রাজার সঙ্গে সাক্ষাত করতে আলাদা'ভাবে তাদেরকে তলব করা হয়েছে।এই দুটি দলই আনোয়ার ইব্রাহিমের মিত্র। তবে সর্বশেষ খবর হলো, আনোয়ার ইব্রাহিমের এসব মিত্রের সঙ্গে সাক্ষাত স্থগিত করেছে রাজ-প্রাসাদ। 


বিরোধী দলীয় নেতারা বুধবার এ তথ্য দিয়েছেন। ডিএপির সেক্রেটারি জেনারেল লিম গুয়ান ইং এবং আমানা’র প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সাবু স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে মহামান্য রাজার সিনিয়র প্রাইভেট সেক্রেটারি জানিয়েছেন, উভয় দলের সঙ্গে তার আলাদা আলাদা বৈঠক স্থগিত করা হয়েছে। তবে নতুন কোনো তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে কিনা সে বিষয়ে এই দু’নেতা কিছু বলেননি।


 

উল্লেখ্য, গত মার্চে প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদের দলের সদস্য মুহিদ্দিন ইয়াসিন দলের ভিতরে গোপনে নিজের পক্ষে সদস্যদের টানতে থাকেন। বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তিনি ঘোষণা দেন, তারই রয়েছে সংখ্যাগরিষ্ঠ এমপির সমর্থন।


 ওদিকে এমন প্রেক্ষাপটে পদত্যাগে বাধ্য হন মাহাথির মোহাম্মদ।সত্যি সত্যি সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিয়ে মার্চে প্রধানমন্ত্রী হন মুহিদ্দিন ইয়াসিন। কিন্তু তারপর পার্লামেন্ট অধিবেশন বন্ধ হয়ে যায় করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কারণে। একদিন শুধু রাজার প্রতি সম্মান প্রদর্শন করতে সামান্য সময়ের জন্য পার্লামেন্ট অধিবেশন আহ্বান করে সরকার। এদিন কৌশলে বিরোধীদের নোটিশ এড়িয়ে যায় তারা।

 

 তারপর প্রায় ৮ মাস কেটে গেছে। এখন নতুন করে ক্ষমতার রশি ধরে টান দিয়েছেন আনোয়ার ইব্রাহিম। তিনি সোমবার সংবাদ সম্মেলন করে বলেছেন, পার্লামেন্টে যে ২২২ টি আসন আছে তার মধ্যে ১২০ জনেরও বেশি এমপি তাকে সমর্থন করেন। ফলে তিনি নতুন সরকার গঠন করতে চান। এরও আগে তিনি এমন ঘোষণা দিয়েছিলেন। তবে সে সময় কি পরিমাণ এমপি তাকে সমর্থন করেন তার সুনির্দিষ্ট সংখ্যা উল্লেখ করেননি। 

 

সোমবারের ওই তথ্য নিয়ে তিনি মঙ্গলবার রাজার সঙ্গে সাক্ষাত করেন। এরপর রাজপ্রাসাদ থেকে বিবৃতিতে জানানো হয়, আনোয়ার ইব্রাহিম তাকে সমর্থনকারী এমপিদের সংখ্যা জানিয়েছেন। তবে তার এসব সমর্থকদের পরিচয় প্রকাশ করেননি। বর্তমান পার্লামেন্টে ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রীর মাত্র দুটি আসনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা আছে। ফলে যেকোনো সময় তা হাতছাড়া হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন পর্যবেক্ষকরা। উল্লেখ্য, মালয়েশিয়ায় রাজা শুধু বড় বড় আনুষ্ঠানিক ভূমিকা পালন করেন। 

তবে কোনো পার্লামেন্ট সদস্য বা দলনেতাকে যদি সংখ্যাগরিষ্ঠ এমপি সমর্থন করেন, তাহলে তাকে তিনি প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ করতে পারেন। মালয়েশিয়ায় নতুন সরকার সাধারণত নির্বাচনে নির্বাচিত হয়। কিন্তু বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন রাজা।


No comments

Theme images by Dizzo. Powered by Blogger.