মালয়েশিয়ায় শ্রমিক আটকে রেখে মাত্র ১০ রিঙ্গিত বেতন দেয়ার অভিযোগে ৩জন মালিক গ্রেফতার

0
543

মালয়েশিয়ার ক্লাং এলাকার একটি রেস্টুরেন্ট ও ২টি হোস্টেল থেকে ২২ জন অভিবাসী কর্মীকে উদ্ধারকাজ করেছে পুলিশ।
কর্মীদের আটকে রেখে প্রতিদিন মাত্র ১০ রিঙ্গিত করে বেতন দেয়া হত এবং কেউ উচ্ছিষ্ট খাবার খেলে বেতন থেকে কেটে নেয়া হতো।

ক্লাং এলাকার তামান সি লিউং এর একটি রেস্টুরেন্টের ২২ জন অভিবাসী কর্মীর ভাগ্যে ঘটেছিলো এমন ঘটনা।মালয়েশিয়ার পুলিশের প্রিভেনশন অব ট্রাফিকিং ইন পারসন এন্ড মাইগ্র‍্য্যান্টস এন্টি স্মাগলিং ইউনিট, বুকিত আমান পুলিশের সিআইডির ফৌজদারি তদন্ত বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এন্টি ট্রাফিকিং ইন পারসন টাস্কফোর্সের অংশ গ্রহনে যৌথ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

বুকিত আমান পুলিশের সিনিয়র কমিশনার চিফ এসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর ফাদিল মাসরুস বলেন, তথ্য ও গোয়েন্দা তৎপরতার ফলাফল অনুযায়ী বৃহস্পতিবার একটি রেস্টুরেন্ট ও ২টি কর্মী হোস্টেলে সফলভাবে অভিযান চালানো হয়।

গতকাল রাত ১২.৪৫ মিনিটে চালানো অভিযানে নিয়োগকর্তা ও কেয়ারটেকার সহ ২৯ থেকে ৬০ বছর বয়সী ৩ জনেকে গ্রেফতার করা হয়। ফাদিল আরও বলেন তার টিম ২২ জন বিদেশি কর্মীকে উদ্ধার করেন যাদের মধ্যে ১১ জন ইন্ডিয়ান এবং ১১ জন ইন্দোনেশিয়ার অভিবাসী।



তিনি জানান, অভিযান চালানোর সময় সেখান থেকে ৪০ টি পাসপোর্ট, ১টি BMW কার এবং প্রায় ৪ হাজার রিঙ্গিত নগদ অর্থ জব্দ করা হয়েছে।
প্রাথমিক তদন্ত অনুযায়ী জানা যায়, নিয়োগকর্তা কর্মীদের ১৫০০ রিঙ্গিত বেতন না প্রদান করে প্রতিদিন মাত্র ১০ রিঙ্গিত করে দেয়া হত এবং কাজ শেষে তাদের আটকে রাখা হতো।

কর্মীদের সাথে অমানবিক ব্যবহারের পাশাপাশি প্রতিদিন ১২ ঘন্টা কাজ করতে হতো এবং কাজ শেষে তাদের কোনো ধরনের মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে দেয়া হতোনা। প্রয়োজন হলে নিয়োগকর্তা অনুমতি ছাড়া মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যেতোনা।

তিনি বলে,তারা যদি পালানোর চেষ্টা করতো, তাদের সবসময় হুমকি ধামকির মধ্যে রাখা হতো। খারাপ খাবার খেলেও তাদের জরিমানা করা হতো। এমনকি তাদের থাকার জায়গাটিও মালয়েশিয়ার আইন ৪৪৬ অনুযায়ী নুন্যতম আবাসন সুবিধা দেয়া হয়নি।

তিনি জোর দিয়েছিলেন যে ব্যক্তিরা অভিবাসন ও অভিবাসীদের বিরোধী-ব্যবসা-বাণিজ্য বিরোধী ব্যবসা আইন (এতিসপোম) আইন ২০০ 2007, ইমিগ্রেশন অ্যাক্ট ১৯৫৯ / of৩ এর ৫৫ বি ধারার অধীন এবং মামলাটির ১২ (১) (এফ) এর অধীনে মামলাটি তদন্ত করছে। পাসপোর্ট আইন 1966।


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here