বাংলাদেশী ও মালয় গ্যাং দ্বারা প্রবাসী অপহরণ, ৯ মাস ধরে খোজ বের করতে ব্যার্থ পুলিশ

0
1
মালয়েশিয়ায় বাঙ্গালী গ্যাং কর্তৃক  অপহৃত আল মামুন

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী ব্যবসায়ী ও সাধারণ শ্রমিকদের অপহরণ বেড়েই চলেছে। এসব অপহরণ স্থানীয়দের সহায়তায় বাংলাদেশীরা করে থাকে। বড় বড় ব্যবসায়ীদের টার্গেট করে, অথবা ব্যবসায়ে প্রতিদ্বন্দ্বী হলে স্থানীয়দের সহযোগিতায় এসব অপহরণ করা হয়। গত ২০১৮ ও ২০১৯ সালে বেশ কিছু বাংলাদেশী ব্যবসায়ী অপহরণ হওয়ার ঘটনা ঘটে এর মধেই কিছু নিখোঁজই রয়ে গেছে আবার কিছু পুলিশের সহযোগিতায় উদ্ধার হয়েছে।

এই অপহরণ করার পর মোটা অংকের অর্থ দাবী করা হয় পরিবারের লোকজনের কাছে। এদিকে অপহৃতকে শারীরিক নির্যাতন করে ছবি ও ভিডিও করে পরিবারকে পাঠিয়ে প্রান নাশের ভয় দেখানো হলে পরিবারগুলো টাকা দিতে রাজি হয়ে যায়। অনেক সময় টাকা দেয়ার পর অপহৃতকে ছেড়েও দেয়া হয়না, সম্পুর্ন গুম করে ফেলা হয়। তেমনি একটি ঘটনা ঘটেছে

গত বছরের এপ্রিল মাসের ৬ তারিখে। বাংলাদেশী ও মালয় গ্যাং কর্তৃক যৌথভাবে ঐ ব্যক্তিকে অপহরণ করা হয়। অপহৃতের পরিবারের কাছে মুক্তিপণ চাওয়া হলে চারটি ব্যাং একাউন্টে ৪ বার সর্বমোট ১৭’৫৭০ রিঙ্গিত বা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা ডিপোজিট করে দেয়া হয়। বলা হয়েছিল টাকা দেয়ার ২০ মিনিটের মধ্যেই ছেড়ে দেয়া হবে কিন্তু সেটা করা হয়নি। যারা অপহরণ করেছে তাদের সাথেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশের হাইকমিশনের নিকট সাহায্য চাওয়া হলে হাইকমিশনের তরফ থেকে উদ্ধার করার বিষয়ে সাহায্য করার আশ্বাস দেয়া হলেও সেটা করা হয়নি। ৯ মাস অতিবাহিত হয়ে গেলেও কোন খোজ খবর মিলেনি। আজ অবধি মালয়েশিয়ায় অবস্থিত বাংলাদেশ হাইকমিশন  কোন খোজ বের করতে পারেনি।
গতকাল ঐ অপহৃতের সন্তানের একটি পোস্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। ঐ পোস্টটি হুবহু নিচে তুলে ধরা হল—-

আস্সালামু আলাইকুম।
আমার বাবাঃ আল মামুন। তিনি ২০০৭ সাল হতে মালয়েশিয়াতে বৈধভাবে  অবস্থান করছিলেন। কাজ ভালোই চলছিল।কিন্তু বিপর্যয়  ঘটে ৬ এপ্রিল ২০১৯ সালে।  বাঙালি  ও মালয়  যৌথ গ্যাং কতৃক তাকে অপহরণ  করা হয়।অপহরণের পর মুক্তিপণও দাবি করে।আমরা মুক্তিপণও দেই।কথা ছিল টাকা পাওয়ার ২০ মিনিটের মধ্যে ছেড়ে দেয়া হবে।কিন্তু আজও কোনো খোঁজ  নেই। বাবা বেঁচে  আছো কিনা তাও জানি না। ২৬ এপ্রিল  ২০১৯… পররাষ্ট্র  মন্ত্রণালয়ে বাবাকে উদ্ধারের জন্য   সাহায্য  চেয়ে লিখিত আবেদন  দেয় আমার মা।তারা সেটি মালয়েশিয়াতে অবস্থিত  বাংলাদেশ হাইকমিশনে  পাঠায়।হাইকমিশনের কর্মকর্তা  ( হেদায়েত  মন্ডল=+60 12-294 1617
মাসুদ=+60 13-633 0103
জাহাঙ্গীর =+60 16-547 6580
ফরিদ=+60 12-431 3150
তারা শুধু আমাকে মিথ্যা আশ্বাস  দেয় যে,আমার বাবাকে উদ্ধারে কাজ করছে।৯ মাস অতিবাহিত হয়ে গেলেও তারা কোনো সন্ধান দিতে পারে নি। এখন আমার বাবাকে ফিরে পেতে  কি করতে পারি??? আামার বাবাকে ফিরে পেতে আমাকে সাহায্য  করুন।
যে যে একাউন্টে  সন্ত্রাসীরা  টাকা নিয়েছিল,সেগুলো নিচে দিয়ে দেয়া হলোঃ

Bank : May Bank
Account  holder: Abu Yousuf Miazi
Account  :164080018661
Amount :2750 RM

Bank: Hong Leong Bank
Account  holder : Ziayour Rahman
Account  : 3050 1022 439
Amount  : 4000 RM

Bank: RHB Bank
Account  holder : Ziayour Rahman
Account  : 1130 6160 1289 75
Amount  : 4000RM

Bank : CIMB Bank
Account  holder : Am Aima Enterprise
Account  : 8603260484
Amount  : 7000RM

যোগা্যোগ
নাফিদুল ইসলাম ইমন।
whattsapp+imo= +8801706550592

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here