অপারেসির সময় ইমিগ্রেশনের নতুন ফাঁদে পড়ে অবৈধরা গ্রেফতার, ১৭ জন বাংলাদেশীসহ ৫৮ জন। অভিবাসী কন্ঠ।

0

 ইমিগ্রেশন সদস্যরা ৩০ মিনিটের ফাঁদ পেতে অবৈধদের ধরার নতুন কৌশল নিয়েছে, অবশেষে ইমিগ্রেশনের ফাঁদে ধরা পড়ল ৫৮ জন অবৈধ অভিবাসী।

পেরাক ইমিগ্রেশন অফিসার ও সদস্যদের একটি দল গতকাল গোপেংয়ের একটি বাসভবনে অভিযান চালাতে সেখানে থাকা বিদেশীরা ইমিগ্রেশন উপস্থিতি টের পেয়ে আগেই পালিয়ে যায়৷ ইমিগ্রেশন ভিতরে গিয়ে দেখে বাড়িটি শূন্য ও খালি তবে বিদেশি শ্রমিকদের জিনিসপত্র পড়ে থাকতে দেখা গেলে

 ইমিগ্রেশন অফিসারগন তাদের ধরার জন্য একটি ভিন্ন কৌশলে যান। তারা ভবনটির আশেপাশে আবার লুকিয়ে যায় পরে ইমিগ্রেশন সদস্যরা চলে গেছে মনে করে বিদেশী ও বাংলাদেশীরা বের হয়ে আসলে ইমিগ্রেশনের ফাঁদে পড়ে গ্রেফতার হন।

 পেরাক ইমিগ্রেশনের পরিচালক কমলুদ্দিন ইসমাইল বলেছেন, প্রথম অভিযান চালিয়ে জায়গাটি খালি ও জনহীন অবস্থায় পাওয়া গেছে। তবে তিনি বলেছিলেন যে জায়গাটি সন্দেহজনক ছিল কারণ পোশাক এবং আসবাবের মতো জিনিসগুলি পিছনে ফেলে রাখা হয়েছিল।

 এই অবৈধ অভিবাসীদের চোখ ফাঁকি দিয়ে সদস্যরা ৩০ মিনিট লুকিয়ে থাকা ফাঁদ পেতেছিল আর কিছু সদস্য  অন্য জায়গায় সরে গিয়েছিল। ইমিগ্রেশন সদস্যদের বেশি অংশ অন্য জায়গায় সরে যেতে দেখলে লুকিয়ে থাকা অবৈধরা অভিযান শেষ ভেবে বের হয়ে আসলে চৌকস সদস্যরা ১১ জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

ইমিগ্রেশনের ফাঁদে পড়ে গ্রেফতার ৫৮ অবৈধ অভিবাসী

তিনি আরও জানান, রাত ৯.৩০ টা থেকে ভোর সাড়ে ৩ টা পর্যন্ত ইন্টিগ্রেটেড অপারেশন চলাকালীন ইপোহ, গোপেনগ, তাইপিং, বাগান সেরাই ও কুয়ালা কারাউ, ইটারি এবং সুপারমার্কেটের গুদামসহ ১৬ টি স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

 অভিযান অনুসারে, ইমিগ্রেশন অ্যাক্ট ১৯৫৯ / ৬৩ এর বিভিন্ন অপরাধের জন্য ১৬ থেকে ৪০ বছর বয়সী ৫৮ বিদেশীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল এবং অবৈধ অভিবাসীদের পালাতে সাহায্য করার কারণে ১ জন মালয়েশিয়ান নাগরিককে আটক করা হয়েছে।

 আটককৃতরা হলেন যথাক্রমে ২১ জন থাই, ১৭ জন বাংলাদেশি, মায়ানমার (১২), নেপাল (৩), ইন্দোনেশিয়া (২) এবং একজন পাকিস্তানী ও ভারতীয় নাগরিক।

 সূত্র: সিনার হারিয়ান মালয়েশিয়া

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here